1. admin@dailybanglavoice24.com : admin :
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ১২:২৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
রাজশাহীতে বাকি টাকা চাওয়ায় কর্মচারীকে কুপিয়ে হত্যা, ২ আসামির মৃত্যুদন্ড,, ট্রাফিক পুলিশ সদস্য আব্দুস সামাদ ৫৭ বছর বয়সে এসএসসি পাশ করে অবাক করে দিলেন দেশবাসীকে,, গণপরিবহনে চাঁদাবাজির সময় RAB-5 এর অভিযানে আটক ২১,, দৈনিক বাংলা ভয়েস 24.com এর স্টাফ রিপোর্টার মুনজুর দীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ,, পুঠিয়ায় মাদক বিক্রির প্রতিবাদ করায় মাদক সম্রাট মনিরের হাতে যুবক কে জখম করার অভিযোগ দূর্গাপুরে আসামী প্রভাবশালী হওয়ায় ভিকটিম কুলসুম ন্যায় বিচার হতে বঞ্চিত। দূর্গাপুরে আসামী প্রভাবশালী হওয়ায় ভুক্ত ভুগীর মামলা খারিজ রাজশাহীর পুঠিয়ায় বাস ও মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত (২ ) “ভিলেজ ফুড” গ্রামের খাঁটি পন্য নিয়ে গ্রাহকদের আস্থার প্রতিক হয়ে উঠেছে বাংলা ভয়েস দূর্গাপুর উপজেলা প্রতিনিধি নরেশ কুমার কে অব্যহতি

“জেলা গোয়েন্দা শাখার অভিযানে স্মরণকালের বড় ফেন্সিডিলের চালান আটক”

মো: মন্জুর রহমান,স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৫ জুলাই, ২০২৩
  • ১৬২ বার পঠিত

হেরোইন এবং গাঁজা উদ্ধারের রেকর্ডের রেশ কাটতে না কাটতেই জেলা পুলিশ রাজশাহীর গোয়েন্দা শাখার অভিযানে স্মরণকালের বড় ফেন্সিডিলের চালান আটক করা হয়েছে।

আজ ৫ জুলাই বুধবার রাত ৩.৩০ ঘটিকার দিকে বাঘা থানার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের আলাইপুর গ্রামের জনৈক জামালের আম বাগানে ভারত থেকে পাচার করে আনা ৭৪৩ বোতল ফেন্সিডিল আটক করা হয়েছে। নিখুঁত গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ সুপার মহোদয় জনাব এবিএম মাসুদ রানা বিপিএম বার মহোদয়ের নির্দেশনায় জেলা ডিবির এসআই ইনামুল ইসলামের নেতৃত্বে একটা চৌকস টিম এই অভিযান চালিয়ে উল্লেখিত মাদকসহ দু ব্যক্তিকে আটক করে ।আটক ব্যক্তিরা হলো মোঃ চপল আলী (৩৫) পিতা- মৃত খামেদ মন্ডল সাং- আলাইপুর থানা-বাঘা জেলা-রাজশাহী, ২। মোঃ জামরুল শেখ (৩৪), পিতা-মৃত নুজবার শেখ, সাং-কাগমারি, থানা-সাগরপাড়া, জেলা-মুর্শিদাবাদ (ভারত)।
আটক ভারতীয় নাগরিক জামরুল গত রাতেই এই পরিমান ফেন্সিডিল পদ্মা নদী পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে নিয়ে আসে। বাংলাদেশের মাদক ব্যবসায়ীরা এই ফেন্সিডিল জামালের আম বাগানে গ্রহণ করবে এমন তথ্য পেয়ে গোয়েন্দা শাখার সদস্যবৃন্দ আম গাছে উঠে ধৈর্য্য সহকারে অপেক্ষা করতে থাকে । ভারতীয় নাগরিক জামরুল দেশি মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে ফেন্সিডিলের বস্তাগুলো হস্তান্তর করার এক পর্যায়ে ডিবি সদস্যবৃন্দ তাদের উপর ঝাপিয়ে পড়লে তিন মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে যায় এবং দুজনকে আটক করা সম্ভব হয়। জামরুলকে জিজ্ঞাসাবাদে জানায় এর আগেও সে অসংখ্যবার এমন বড় বড় চালান বাংলাদেশে এনেছে। সে আরও জানায় বর্ষাকালে নদীতে পর্যাপ্ত পানি থাকায় ফেন্সিডিল আনা সুবিধা হয়। সে ফেন্সিডিলের বস্তা টিউবের সাথে বেঁধে সাঁতরে নদী পাড়ি দেয়। জিজ্ঞাসাবাদে চপল জানায় সে দীর্ঘদিন ধরে ফেন্সিডিলের ব্যবসা করে আসছে।সে বাঘা থানার তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে বাঘা থানায় ৫টি মাদক এবং বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলা রয়েছে।এ ঘটনায় বাঘা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে৷

উল্লেখ করা যেতে পারে যে গত মাসে জেলা পুলিশের অভিযানে সাড়ে সাত কেজি হেরোইনসহ এক ব্যক্তিকে এবং ৫৬ কেজি গাঁজাসহ দুব্যক্তিকে আটক করা হয়েছিল। মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত জেলা পুলিশের অভিযান চলবে। জেলা পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর